মনোবিজ্ঞানীদের সংজ্ঞা উল্লেখপূর্বক আধুনিক মনোবিজ্ঞানের সংজ্ঞা দাও

অথবা, আধুনিক মনোবিজ্ঞান সম্পর্কে বিভিন্ন মনোবিজ্ঞানীদের অভিমত ব্যক্ত কর।

অথবা, আধুনিক মনোবিজ্ঞান কি?

উত্তর :  ভূমিকা: মনোবিজ্ঞান হলো মন বা আত্মা সম্পৰ্কীয় বিজ্ঞান। বিভিন্ন গবেষণা ও পদ্ধতির মাধ্যমে মনোবিজ্ঞান বিজ্ঞানের মর্যাদা লাভ করেছে। তাই বস্তুনিষ্ঠ বিজ্ঞান হিসেবে আধুনিক মনোবিজ্ঞান বর্তমানে প্রাণীর আচরণ ও মানসিক প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা করে এবং লব্ধজ্ঞান বাস্তবে প্রয়োগ করে। মনোবিজ্ঞান হলো মানুষ ও প্রাণীর আচরণ ও মানসিক প্রক্রিয়া সম্পর্কিত বিজ্ঞান। বিজ্ঞানের জয়যাত্রার সাথে সাথে মনোবিজ্ঞানের জয়যাত্রা সমান তালে এগিয়ে যায়। ব্যক্তি জীবন থেকে সমাজ জীবনের সকল ক্ষেত্রে মনোবিজ্ঞান এর প্রয়োজন রয়েছে। মনোবিজ্ঞানের সংজ্ঞা : মনোবিজ্ঞানের ইংরেজি প্রতিশব্দ ‘Psychology’। যা দু’টি গ্রিক শব্দ ‘Psyche’ যার অর্থ মন বা আত্মা এবং logos অর্থ বিজ্ঞান থেকে উৎপত্তি হয়েছে। সুতরাং শাব্দিক অর্থে মনোবিজ্ঞানকে মন বা আত্মা সম্বন্ধীয় বিজ্ঞান বলা হয়। বিংশ শতাব্দীর শুরু দিকে একে চেতনার বিজ্ঞান ও আচরণের বিজ্ঞান হিসেবে অভিহিত করা হয়। তবে আধুনিক মনোবিজ্ঞানীগণ এর সাথে মানসিক প্রক্রিয়াকেও যুক্ত করেছেন। শাব্দিক অর্থে মনোবিজ্ঞান : মনোবিজ্ঞানের ইংরেজি প্রতিশব্দ হলো ‘Psychology’ । Psychology শব্দটি দুটি গ্রিক শব্দ ‘Psyche’ এবং ‘Logos’ থেকে এসেছে, যার অর্থ যথাক্রমে ‘আত্মা’ বা ‘মন’ এবং বিজ্ঞান। সুতরাং শাব্দিক অর্থে মনোবিজ্ঞান হলো আত্মা বা ‘মন’ সম্পৰ্কীয় বিজ্ঞান। অনেক দার্শনিকের মতে, “আত্মার অনুশীলনকারী বিজ্ঞানই হলো মনোবিজ্ঞান।” পৃথিবীর ইতিহাসে সর্বপ্রথম গ্রিক দার্শনিকরাই মনোবিজ্ঞানকে আত্মা সম্বন্ধীয় বিজ্ঞানরূপে বর্ণনা করেছেন । আধুনিক মনোবিজ্ঞান : আধুনিক মনোবিজ্ঞানকে সংজ্ঞায়িত করা যায়- “মনোবিজ্ঞান হলো এমন একটি বিজ্ঞান যা মানুষ ও প্রাণীর আচরণ এবং মানসিক প্রক্রিয়া সম্বন্ধে অনুমান করে।”

ALSO READ,

প্রামাণ্য সংজ্ঞা : মনোবিজ্ঞানীগণ বিভিন্নভাবে মনোবিজ্ঞানকে সংজ্ঞায়িত করেছেন। নিম্নে মনোবিজ্ঞানের বিভিন্ন সংজ্ঞা দেয়া হলো মনোবিজ্ঞানী প্রদত্ত । মর্গান, কিং, ওয়াইজ ও স্কোপলার বলেন, “মনোবিজ্ঞান হলো মানুষ ও প্রাণীর আচরণ সম্বন্ধীয় বিজ্ঞান এবং এটি মানুষের সমস্যায় এ বিজ্ঞানের প্রয়োগকে অন্তর্ভুক্ত করে।” ক্রাইডার, গোথালস, কেডানহ ও সলোমন বলেন, “মনোবিজ্ঞানকে আচরণ ও মানসিক প্রক্রিয়ার বিজ্ঞানসম্মত অনুধ্যান হিসেবে সংজ্ঞায়িত করা যেতে পারে।” জন. এল. ভোগেল বলেন, “মনোবিজ্ঞান হলো আচরণ ও অভিজ্ঞতার বিজ্ঞানসম্মত অনুধ্যান এবং মানুষের সমস্যায় সেই জ্ঞানের প্রয়োগ।” উইলিয়াম বাসকিস্ট বলেন, “মনোবিজ্ঞান হলো জীবের আচরণ এবং জ্ঞানীয় প্রক্রিয়ার বিজ্ঞানসম্মত অনুধ্যান।” ওয়াইনি ওয়াইটেন-এর মতে, “মনোবিজ্ঞান হলো সে বিজ্ঞান যা আচরণ এবং অন্তরালে নিহিত শারীরবৃত্তীয় ও জ্ঞানগত প্রক্রিয়াসমূহ অনুধ্যান করে এবং এটি হলো পেশা যা বাস্তব সমস্যায় এ বিজ্ঞানের সঞ্চিত জ্ঞানকে প্রয়োগ করে।” জন. সি. রাচ বলেন, “আমরা মনোবিজ্ঞানকে আচরণ ও মানসিক কার্যকলাপের বিজ্ঞান হিসেবে সংজ্ঞায়িত করতে পারি।” মার্গারেট নাইট এবং রেক্স নাইট তাদের ‘Modern Introduction to Psychology’ গ্রন্থে মনোবিজ্ঞানের যে সংজ্ঞাটি দিয়েছেন সেটি আধুনিক মনোবিজ্ঞানীর কাছে গ্রহণযোগ্য হয়ে থাকে বলে মনে করেন- “মনোবিজ্ঞান হলো অনুভব ও আচরণের সুসংবদ্ধ আলোচনা।” মনোবিজ্ঞানী মাহের বলেন- “মনোবিজ্ঞান হলো দর্শনের সে শাখা যা মানুষের মন বা আত্মা নিয়ে আলোচনা করে।” সুতরাং মনোবিজ্ঞান হলো মানুষ ও প্রাণীর আচরণ সম্বন্ধীয় বিজ্ঞান। উপসংহার : মনোবিজ্ঞানের বিষয় হচ্ছে মানুষ ও প্রাণীর আচরণ। অর্থাৎ আধুনিক মনোবিজ্ঞান হচ্ছে বিজ্ঞানের সেই শাখা যা মানুষ ও প্রাণীর আচরণ এবং মানসিক প্রক্রিয়া সম্বন্ধে বিজ্ঞানসম্মত পর্যালোচনা করে। মনোবিজ্ঞান হলো মানসিক পরিমণ্ডলের বিজ্ঞান। মানুষ কি মনোবিজ্ঞান এ প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকে যা জানা যায় উপরিউক্ত সংজ্ঞাগুলি বিশ্লেষণের পর।

Leave a Comment